জয় হোক আলো ঘরের, জয় হোক আলোকিত মানুষের

জয় হোক আলো ঘরের, জয় হোক আলোকিত মানুষের

শ্যামলী খান।
স্নিগ্ধ প্রাকৃতিক পরিবেশের বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্র আমাকে প্রবলভাবে কাছে টানতো। আর আবদুল্লাহ আবু সায়ীদ স্যারের হাস্যোজ্জ্বল মায়াময় মুখখানি যখনই দেখতাম,পরম আপনজন মনে হতো। এখানে আসা যাওয়ার কারণে বইপড়াটা নিয়মিত হতো। বিশ্ব সাহিত্য সম্পর্কে ধারণা পেলাম। অনেক দুস্প্রাপ্য বই হাতে পেলাম, যেগুলো হয়তো তখন পয়সা দিয়ে কেনা সম্ভব ছিলো না।

শিশু পত্রিকাগুলোতে লিখতাম। এই পড়ার অভ্যাসের জন্য আমার লেখালেখির হাতটা সহজ মনে হতো। কেন্দ্রের নান্দনিক পরিবেশ ভীষণ মুগ্ধ করতো, যে কারণে লাইব্রেরিতে বসেই পড়াটা পছন্দ করতাম। আরেকটা বাড়তি পাওনা ছিলো, বিভিন্ন কবি সাহিত্যিকদের সাথে পরিচয় হতো,আলাপ হতো। আমি ছিলাম বিবাহিত। ঘরের মানুষটিও লেখক। যে জন্য এখানে আসার আমার ছিলো অবাধ স্বাধীনতা। এখনও এটা আমার প্রাণের জায়গা, ভালোলাগার জায়গা, প্রশান্তির জায়গা। এখানে আসলে প্রবল একটা মায়া অনুভব করি। যা আমাকে ভীষণ আলোড়িত করে। যে কারণে কেউ এখানে কোনো সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের দাওয়াত করলে, সাধারণত না করি না।

তো,২৫ তম জন্মদিনে আমি এসেছিলাম। তখন সম্ভবত সেই লাল ইটের গাছ-গাছালির ছায়া-ঘেরা পরিবেশ ছিলো। নানান পদের পিঠা, মুড়ি-মুরকির স্বাদ এখনও মনে পড়লে অনুভব করি। আবারও আসছি চল্লিশের শুভেচ্ছা জানাতে। সায়ীদ স্যার দীর্ঘজীবী হোন। সকলের মঙ্গল হোক। জয় হোক আলো ঘরের। জয় হোক আলোকিত মানুষের ।

বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্র চল্লিশ বছরের পথচলা
বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্র চল্লিশ বছরের পথচলা
শুভ কিবরিয়া
স্মৃতির শ্যাওলাজমা দেড়তলা সাইজের দোতলা সেই বাড়িটা
স্মৃতির শ্যাওলাজমা দেড়তলা সাইজের দোতলা সেই বাড়িটা
লুৎফর রহমান রিটন
কেন্দ্রের চল্লিশ আর আমার এগারো
কেন্দ্রের চল্লিশ আর আমার এগারো
মোহাইমিনুল হক জয়
বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্র; প্রগতির চেতনায় আলোকিত বিদ্যাপীঠ।
বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্র; প্রগতির চেতনায় আলোকিত বিদ্যাপীঠ।
রাজন দত্ত মজুমদার
জীবনের ভরকেন্দ্র : বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্র
জীবনের ভরকেন্দ্র : বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্র
আবদুল্লাহ আল মোহন
অংশুকারাভানের এক যাত্রী
অংশুকারাভানের এক যাত্রী
নাদিয়া জেসমিন রহমান
 বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্র , এক অনন্য বিদ্যায়তন
বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্র , এক অনন্য বিদ্যায়তন
মোঃ এনাম-উজ-জামান বিপুল
ধন্যবাদ বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্র
ধন্যবাদ বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্র
বিশ্ব বন্ধু বর্মন
বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্রের বারান্দায়
বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্রের বারান্দায়
পিয়াস মজিদ
পূর্তি উৎসব মানেই অনেক আনন্দ! অনেক ব্যস্ততা!!
পূর্তি উৎসব মানেই অনেক আনন্দ! অনেক ব্যস্ততা!!
মোঃ মনির হোসেন টিটো
বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্রের সাথে আলো হয়ে মিশে আছে শত শত মানুষ
বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্রের সাথে আলো হয়ে মিশে আছে শত শত মানুষ
ইশরাক পারভীন খুশি
“Kendro”, The Centre
“Kendro”, The Centre
MD. MAHDIUL HAQUE
জ্ঞান পিপাসু এক “গান” তাপসের গল্প
জ্ঞান পিপাসু এক “গান” তাপসের গল্প
মোখলেস হোসেন
কেন্দ্রে চল, নতুন বই দিবো
কেন্দ্রে চল, নতুন বই দিবো
আল আমিন